ইউটিউবের জানা অজানা সকল তথ্য

বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত জাওয়েদ করিম চাদ হার্লি, এবং স্টিভ চেম, বিশ্ব বিদ্যালয়ে পড়াশোনার পাশাপাশি চাকরি করতেন অনলাইন ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান পেপালে এখান থেকেই তাদের মধ্য বন্ধুত্ব তৈরি হয় ৩ বন্দুর ই একটা জায়গায় খুব মিল তারা ৩ জনই নিজ উদ্যোগে কিছু করতে চায় কিন্তু কি করা জায় ভেবে পাচ্ছিলেন না এই ভেবে কেটে গেল অনেক দিন, একদিন সময় নির্ধারণ করে ৩ বন্ধু মিটিং এ বসলো একেক জন একেক আডিয়ার কথা বলতে বলতে হঠাৎ তাদের মাতায় আসল একটা ভিডিও শেয়ারিং ওয়েবসাইট তৈরি কেমন হয়? শুরু হল রিচারস তারা দেখল ইন্টারনেটে ভিডিও শেয়ারিং এর ওয়েবসাইট নেই,



তারপর ১৪/২/২০০৫ তারিখে ইউটিউব নামে ডোমেইন রেজিস্টার করা হয় এবং কাজে লেগে গেলেন ২ জন কম্পিউটার প্রকশলি ও একজন ডিজাইনার এক্সপার্ট ডিজাইন এবং ডেবলপমেন্টের কাজ শেষ করে me at the zoo নামে একটি ভিডিও পাবলিশ করেন ইউটিউবের সহ প্রতিষ্ঠাতা জাওয়েদ করিম এবং পরিক্ষা মুলখ সংস্করণ উন্মক্ত করা করেন, কিন্তু পরিক্ষা মুলখ সংস্করণ টি অল্প সময়ের মধ্য ছড়িয়ে পড়তে থাকে দ্রুত বাড়তে থাকে এর ব্যাবহার কারীর সংখ্যা, দরকার হয়ে পড়লো প্রচুর হস্টিং স্পেস এর জন্য দরকার অনেক টাকা চিন্তায় পড়ে গেলেন কোথায় পাবেন এত টাকা তারা ঘুরতে থাকেন বিনিয়োগ কারীদের ধারে ধারে তাদের পরিকল্পনা শুনে বিনিয়োগ করতে রাজী হল স্কুইয়া ক্যাপিটালিস্ট, ব্রডকাস্ট ইয়রসেলফ স্লোগান নিয়ে বিশ্ব ব্যাপী উন্মুক্ত করা হল ইউটিউব এরপর সামনে এগিয়ে যাওয়ার পালা খুব দ্রুতই বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়লো ইউটিউব,

তারপর ২০০৬ সালে গুগল ১৬৫ কোটি ডলারের বিনিময়ে কিনে নেয় ইউটিউবকে শুরুতে ৩ বন্ধুর ভাবনা ছিল ভিডিও শেয়ার করে বিনধন বা মজা করার কিন্তু ইউটিউব কে বেবসায়িক রুপ দেওয়া হয়ে ওঠে সময়ের দাবী, গুগল ইউটিউব কে কিনে নেওয়ার পর এর জনপ্রিয়তা আরও তুঙ্গে বিশেষ করে গুগল এডসেন্স যেকোনো মানুষ যেকোনো জায়গা থেকে ইউটিউবে চ্যানেল তৈরি করে সেখানে যেকোনো ভিডিও শেয়ার করতে পারে এবং যদি সেই ভিডিও গুলো ক্রিয়েটিভ হয় ও ভালো ভিজিটর সেই চ্যানেলে আসে তাহলে গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে ভালো পরিমান একটা এমাউন্ট পাওয়া যায় তাছাড়া সিলবার, গোল্ডেন, ডায়মন্ড প্লেবাটন তো থাকছেই।

Post a Comment

0 Comments