গুগল প্লেষ্টোরের গুরুত্বপূর্ণ ৩ টি ফিচার Play store futures

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস ডাউনলোড করার অনেকগুলো ওয়েবসাইট থাকলেও শতকরা ৯৫% অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারী গুগল প্লেষ্টোরে থেকে অ্যাপস ইনস্টল/ডাউনলোড করেন। গুগল প্লেষ্টোর হচ্ছে গুগল পরিচালিত এবং উন্নতয়নকৃত একটি ডিজিটাল বিতরণ পরিসেবা। এটি অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমে সকল ডিভাইসের অফিসিয়াল অ্যাপ স্টোর হিসেবে কাজ করে, যেখানে লক্ষ লক্ষ অ্যাপস পাওয়া যায় একদম বিনামূল্যে এটি ব্যবহার করা খুবই সহজ শুধু জিমেইল দিয়ে লগইন করেই প্লেষ্টোর থেকে খুব সহজেই যেকোনো অ্যাপস ইনস্টল/ডাউনলোড করা যায়, অন্যান্য ওয়েবসাইট বা সফটওয়্যার এর মতো এই প্লেষ্টোরেও রয়েছে কিছু দরকারি ও অজানা ফিচার, যেগুলো জানা থাকা দরকার চলুন জেনে নেয়া যাক।


Play protect

আমরা যারা অ্যান্ড্রয়েট ফোন ব্যাবহার করি সবাই আমাদের ফোনের ডিফল্ড অ্যাপস গুলো ছাড়াও বিভিন্ন সময় বিভিন্ন প্রোয়জনে গুগল প্লেষ্টোর থেকে নানান অ্যাপস ইনস্টল করে থাকি,  কিন্তু আপনি জানেন কি সেগুলো কতটুকু সিকিউর, আপনি জানেন কি এই আনসিকিউর অ্যাপস গুলো আপনার ফোনের জন্য কতটুকু ক্ষতিকর। আপনার ফোনের সকল ডিভাইস এবং অনন্যা সকল কিছু নষ্ট বা আপনার ফোনটি ড্যামেজ করতে এই একটি আনসিকিউর একটি অ্যাপসই যতেষ্ট।

তবে চিন্তার কিছু নেই অপশনের মাধ্যমে খুব সহজেই জানতে পারবেন আপনার ফোনে ইনস্টল করা অ্যাপস টি কি ক্ষতিকর কিনা।


White list


আমি যখন কোনো অ্যাপসের রিভিউ করতে প্লেস্টোরে যাই আর তখন যদি আমার চোখের কোনো দরকারী অ্যাপস চলে আসে বা কোনো অ্যাপস ভালো লেগে যায় তাহলে আমি সেটা White list এ যুক্ত করে রাখি যাতে পরবর্তীতে খুব সহজে সেটা খুঁজে পাই এবং রিভিউ করতে পারি

গুগল প্লেষ্টোরে এমন অনেক অ্যাপস আছে যেগুলো অনেক সময় সার্চ দিয়ে খুঁজে পাওয়া যায়না সেই অ্যাপস গুলো কে আপনি এই White list এ রেখে দিতে পারেন যা ভবিষ্যৎ কাজে লাগবে।


Library

এই লাইব্রেরি অপশনের কাজটা আপনার পুরোনো সৃতি মনে করিয়ে দেবে, আজ থেকে ৪-৫ বছর বা তারও বেশি দিন আগে আপনি আপনার ফোনে কোন কোন অ্যাপস ব্যবহার কররছিলেন সেটা জানতে পারবেন এই Library অপশনের মাধ্যমে, 

আমি গত ৫ বছরে ১০-১২ টা মোবাইল পরিবর্তন করেছি কিন্তু সবগুলো মোবাইলে একই জিমেইল ব্যবহার করার কারণে খুব সহজেই জানতে পারি যে আমি এক সময় কোন কোন অ্যাপস গুলো ব্যবহার করতাম।


Post a Comment

0 Comments