ফেসবুক থেকে ইনকাম করার উপায়! make money facebook

আজ থেকে ৪-৫ বছর আগে যদি ফেসবুক থেকে ইনকাম করার উপায় বা ব্যবস্থা থাকতো তাহলে আমার জন্য খুব ভালো হতো কারণ এক সময় ফেসবুকে অনেক সময় দিতাম এবং খুবই ফেমাস ছিলাম, কিন্তু দুঃখের বিষয় তখন ফেসবুক থেকে ইনকাম করার উপায় ছিলো না, যদিও অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করা যেতো কিন্তু আমার সেটা জানা ছিলোনা। যাইহোক আমার গল্প বাদ দিয়ে কাজের কথায় আসি, এমন অনেকেই আছেন যারা কোরা বাংলা ফেসবুক এবং আমার ইমেলে বলে থাকে যে কিভাবে ফেসবুক থেকে ইনকাম করা যায় আজ তাদের জন্য আজকের এই টিউটোরিয়াল যেখানে আমি শেয়ার করতে যাচ্ছি ফেসবুক পেজ ও গ্রুপ থেকে ইনকাম করার সকল তথ্য বা উপায়।



মনিটাইজ

ফেসবুক পেজ থেকে ইনকাম করার সবচেয়ে ভালো এবং বেশি বেশি ইনকাম করার মাধ্যমে হচ্ছে  পেজ মনিটাইজ, তবে এই কাজটি অনেকটাই কঠিন, একটি ফেসবুক পেজ মনিটাইজ করার জন্য অনেক কিছু শিখতে হবে এবং সকল নিয়ম-কানুন গুলোও জানতে হবে, আপনি যদি ফেসবুক পেজ মনিটাইজ করে ইনকাম করতে চান তাহলে সবার প্রথমে একটি পেজ খুলতে হবে আর যদি আগে থেকে খুলা থাকে সেটাও হবে, তারপর সেই পেজে ইউনিক ভিডিও আপলোড করতে হবে মানে ফেসবুক পেজে যেই ভিডিও গুলো আপলোড করবেন সেগুলো আপনার নিজের তৈরি করা ভিডিও হতে হবে, অন্য কোথাও থেকে যদি ভিডিও ডাউনলোড করে সেই ভিডিও আপনার পেজে আপলোড করেন তাহলে কখনোই মনিটাইজ পাবেন না। 



অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং

আপনার যদি একটি ফেসবুক পেজ বা গ্রুপ থাকে এবং সেখানে লক্ষাদিক ফ্যান ফলোয়ার থাকে তাহলে আপনি আপনার সেই পেজ বা গ্রুপের মাধ্যমে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে ইনকাম করতে পারবেন। আর যদি কোনো পেজ বা গ্রুপ না থাকেন এবং এই টিউটোরিয়াল টি দেখার পর যদি ভেবে থাকেন একটি পেজ বা গ্রুপ খুলে সেটার মাধ্যমে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করবেন তাহলে ভুল করবেন, কারন একটি পেজ বা গ্রুপ খুলার সাথে সাথে সেখানে লক্ষাদিক ফ্যান ফলোয়ার পাবেন না তার জন্য কম করে ৪-৬ মাস তার তারও বেশি সময় লাগতে পারে। আর এই কাজের জন্য ৪-৬ মাস সময় ব্যায় না করে অস্য কোনো কাজ শিখুন সেটাই ভালো হবে। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে যদি আপনার কোনো ধারণা না থাকে তাহলে এই টিউটোরিয়াল টি দেখতে পারেন।



সিপিএ মার্কেটিং

অ্যাফিলিয়েটমার্কেটিং  আর সিপিএ মার্কেটিং দুটো প্রায় একই বিষয় তবে বাংলাদেশ থেকে সিপিএ মার্কেটিং করে তেমন একটা রেভিনিউ পাওয়া যায়না, কারন সিপিএ অফার গুলো অধিকাংশই ইউরোপ আমেরিকা দেশ গুলোর জন্য প্রাযোয্য। আপনার যদি একটি ফেসবুক পেজ অথবা গ্রুপ থাকে এবং সেখানে ইউরোপ আমেরিকা দেশের ভিজিটর বেশি থাকে তাহলে আপনি সিপিএ মার্কেটিং করে মাসে ৩০০-৪০০ ডলার ইনকাম করতে পারবেন। আর যদি কোনো পেজ বা গ্রুপ না থাকে তাহলে ইউরোপ আমেরিকা দেশের মানুষদের টার্গেট করে নতুন একটি পেজ বা গ্রুপ খুলে সেখানে সিপিএ অফার প্রোমোট করে করা শুরু করে দিন।



লিংক শর্টনার

আপনার যদি একটি ফেসবুক পেজ অথবা গ্রুপ থাকে তাহলে আপনি সেই পেজ বা গ্রুপের মাধ্যমে লিংক শর্টনার এর কাজ করে ইনকাম করতে পারবেন। যেকোনো ভাইরাল টপিক বা নিউজ অথবা প্রোয়জনীয় কোনো টিউটোরিয়ালের লিংক একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সর্ট করে সেই লিংক আপনার পেজ অথবা গ্রুপে শেয়ার করতে হবে, আপনার শেয়ার করা লিংকে যদি ১০০০ ভিউ আসে তাহলে আপনি ৩-১৬ ডলার পর্যন্ত আয় করতে পারবেন, এবং যত বেশি ভিউ হবে আপনার ইনকাম তত বেশি হবে।



ফাইল শেয়ারিং

অডিও ভিডিও ছবি বা যেকোনো ফাইল শেয়ার যদি অনলাইনে শেয়ার করতে হয় তাহলে আমরা সেই ফাইল টি গুগল ড্রাইভ বা ড্রপ ডাউনে ফাইল আপলোড করে সেই ফাইলের লিংক শেয়ার করি যার মাধ্যমে যে কেউ আমাদের আপলোড করা ফাইল খুব সহজেই ডাউনলোড করতে পারে। তবে এখন আপনি চাইলে এই ফাইল আপলোড করে ইনকাম করতে পারবেন আর ফাইল আপলোড করে ইনকাম করার অনেকগুলো সাইট আছে সেখানে রেজিষ্ট্রেশন করে আপনার ফাইল টি আপলোড করে সেই ফাইলের লিংক আপনার ফেসবুক পেজ বা গ্রুপে শেয়ার করে দিবেন পরবর্তীতে কেউ যদি সেই ফাইল টি ডাউনলোড করে তাহলে আপনি প্রতি ১ হাজার ডাউনলোডের জন্য ৪-২০ ডলার পর্যন্ত ইনকাম করতে পারবেন। 



স্পন্সরশীপ আদান-প্রদান

ফেসবুক থেকে ইনকাম করার সবচেয়ে রাজকীয় একটি মাধ্যমে হচ্ছে এই স্পন্সরশীপ, আমি কয়েকদিন আগে একটি ফেসবুক গ্রুপের এডমিনের সাথে কথা বললাম তাদের গ্রুপের ৩ লাখ মেম্বার রয়েছে, আমি সেই গ্রুপের এডমিন কে জানালাম আমি আপনার গ্রুপে আমার ওয়েবসাইটের প্রোমোশন করতে চাই বিনিময়ে আমি আপনাকে কিছু টাকা দিবো মানে স্পন্সর নিতে চাচ্ছি, তিনি আমায় বললেন তারা কোনো বিজ্ঞাপন প্রচার করেনা। তখন আমি অন্য গ্রুপের অন্য গ্রুপের এডমিনের সাথে যোগাযোগ করলাম। এবং স্পন্সরশীপ দিলাম।

আপনার যদি একটি ফেসবুক গ্রুপ থাকে এবং সেখানে লক্ষাদিক বা তারও বেশি মেম্বার থাকে তাহলে আপনি এই স্পন্সরশীপ আদান-প্রদান করে ভালো পরিমান ইনকাম করতে পারবেন।


বুষ্ট ও প্রমোট বিজনেস

সবশেষে যে উপায় টি শেয়ার করতে যাচ্ছি এটি খুবই চাহিদা সম্পূর্ণ একটা উপায়, সেটা হচ্ছে ফেসবুক বুষ্ট ও প্রমোট বিজনেস, অনলাইন যেকোনো পন্য বা পরিসেবা মার্কেটিং করার অন্যতম সেরা ও জনপ্রিয় মাধ্যমে হচ্ছে ফেসবুক প্রমোট ও বুস্ট, যেটা করার জন্য ক্রেডিট বা মাস্টার কার্ডের প্রোয়জন হয় আর এই কার্ড পাওয়া বা সংগ্রহ করা সাধারণ মানুষের পক্ষে খুবই কষ্টকর একটা বিষয়, আপনি যদি এই বিজনেস টা করতে চান তাহলে প্রথম একটি মাস্টার কার্ড সংগ্রহ করতে হবে তারপর একটি পেজ খুলে সেখানে প্রচারনা শুরু করে দিন যে আপনি ফেসবুক পেজ প্রোমোট ও পোষ্ট বুষ্ট করেন, আশা করা করা যায় খুব সহজ ও দ্রুতই ভালো কিছু করতে পারবেন

আজ এই পর্যন্তই পরবর্তীতে যদি আরো কোনো উপায় খুঁজে পাওয়া যায় তাহলে সেটা এখানে যুক্ত করে দিবো, ততক্ষণ সাথেই থাকুন। 

Post a Comment

2 Comments

  1. ইনকামের জন্য দারুণ একটা সাইট

    ReplyDelete
  2. Hey,

    I have a Facebook page. https://facebook.com/techsheet21

    How I can earn from this page. Please visit my page, then suggest me to monetize!

    Thank you for sharing such a great article!!

    ReplyDelete