মাইক্রোসফট এক্সেল সম্পর্কিত সকল তথ্য

মাইক্রোসফট এক্সেল হচ্ছে একটি স্প্রেডশিট অ্যানালাইসিস প্রোগ্রাম যার মাধ্যমে ম্যাকওএস, উইন্ডোজ এবং মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম আইওএস ও অ্যান্ড্রয়েড সংস্করণ রয়েছে তথ্য সংরক্ষণ কাজের জন্য ব্যবহৃত হয়ে থাকে। সহজ ভাবে বলতে গেলে ছককাটা বড় মাপের কাগজ, যেখানে হিসাবের কাজ সম্পন্ন হয়। কাগজের স্প্রেডশিটের ঠিক অনুরূপ হচ্ছে মাইক্রোসফট এক্সেল। বিশেষ কিছু কারিগরি দক্ষতা জানা থাকলে এই প্রোগ্রাম সহজেই ব্যবহার করা যায়। বিভিন্ন ব্যাংক সরকারি বেসরকারি শিক্ষা ও দাপ্তরিক প্রতিষ্টান এবং ব্যবসায়িক কাজ ছাড়াও ব্যাক্তিগত কাজেও মাইক্রোসফট এক্সেলের গুরুত্ব অনেক। এক্সেল হচ্ছে মাইক্রোসফট অফিস স্যুটের একটি অংশ এক্সেলে হিসাব-নিকাশ, চিত্রায়নের হাতিয়ার, পিভট টেবিল, ম্যাক্রো প্রোগ্রামিং ভাষাসহ বেশ অনেক সুবিধা রয়েছে। এক্সেল সবগুলো প্ল্যাটফর্মেই বিস্তৃতভাবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে, বিশেষ করে ১৯৯৩ সালে ৫ম সংস্করণ থেকে এক্সেল তৎকালীন ইন্ডাস্ট্রি প্রামাণিক লোটাস ১-২-৩ এর জায়গা দখল করে নেয়।


মাইক্রোসফট এক্সেল সম্পর্কিত সকল তথ্য


এক্সেলের ইতিহাস

মাইক্রোসফট এক্সেল সর্বপ্রথম ১৯৮৬ সালে ম্যাকে অপারেটিং সিস্টেমের জন্য তৈরি করা হয়েছিলো। এরপর উইন্ডোজের জন্য প্রাথমিক সংস্করণ মুক্তি পায় ১৯৮৭ সালে। শুরুর দিকে অনেকগুলো স্প্রেডশিট প্রোগ্রামের থেকে কিছু ভিন্ন ব্যবহারকারী ইন্টারফেস টুইক প্রদান করা হয়েছিলো, তবে মূল বিষয়গুলো এখনও অই স্প্রেডশিট সফটওয়্যার গুলোর মতই আছে।


Post a Comment

0 Comments