বাংলাদেশের সেরা ইন্টারনেট উদ্যোক্তা

একজন ব্যক্তি যখন নিজের কর্মসংস্থানের কথা চিন্তা করে কোন চাকরি বা কারো অধিনস্ত না থেকে নিজে থেকেই কোন ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান স্থাপন করার চেষ্টা করেন বা পরিকল্পনা শুরু করেন তখন তাকে উদ্যোক্তা বলা হয়, অর্থনীতির ক্ষেত্রে, উদ্যোক্তা শব্দটি এমন একটি সত্তার জন্য ব্যবহৃত হয় যার উদ্ভাবন বা প্রযুক্তি পণ্য এবং পরিষেবায় অনুবাদ করার ক্ষমতা আছে। এই অর্থে, উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠিত সংস্থা এবং নতুন ব্যবসা উভয় পক্ষের কার্যক্রম বর্ণনা করে একজন উদ্দোক্তা তার উদ্যোগের জীবনের সবচেয়ে কঠিন এবং গুরত্বপুর্ণ সময় কঠোর মনোবল, উদ্যাম প্রানশক্তি ও আত্ববিস্বাস কে সঙ্গী করে শত বাধা পেড়িয়ে একজন আত্বনিরভরশিল ব্যাবসায়ি হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে এগিয়ে যান।

তবে এর মধ্যে যারা ইন্টানেট উদ্দোক্তা তাদের হিসেবটা একটু ভিন্ন তারা তাদের সর্বোচ্চ মেধা ও পরিশ্রম দিয়ে আমাদের জন্য এমন কিছু তৈরি করেছেন যার জন্য আমাদের দৈনন্দিন জীবনের তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার অনেকটাই সহজ ও সুন্দর হয়েছে। কয়েকদিন আগে আমি আপনাদের সাথে বিশ্বের সেরা ১০ জন ইন্টারনেট উদ্দোক্তাদের নিয়ে একটি টিউটোরিয়াল শেয়ার করেছিলাম। আমাদের বাংলাদেশেও এমন অনেক ইন্টারনেট উদ্দোক্তা আছেন তাই আজকে আপনাদের সাথে শেয়ার করতে যাচ্ছি বাংলাদেশের সেরা ১০ জন ইন্টারনেট উদ্দোক্তা যাদের জন্ম না হলে হয়তো ইন্টারনেট ও তথ্য প্রযুক্তিতে আমাদের বাংলাদেশ বর্তমানের তুলনায় অনেকটাই পিছিয়ে থাকতো।


ইন্টারনেট উদ্দোক্তা কে, ইন্টারনেট উদ্দোক্তা কতজন, ইন্টারনেট উদ্দোক্তা কিভাবে হব,  বাংলাদেশের ইন্টারনেট উদ্দোক্তা,



তৌফিক ইমরোজ খালিদী

অনলাইন নিউজ দেকা ব পড়ার জন্য অসংখ্য অগনিত নিউজ প্রোটাল ওয়েবসাইট আছে তবে বাংলাদেশের সবার প্রথম ও যার উদ্যোগে অনলাইনে নিউজ প্রচারনা শুরু হয় তার নাম তৌফিক ইমরোজ খালিদী । সবার হাতে হাতে এবং যেকোনো সময় যেকোনো জায়গায় যেকোন অবস্থায় দেশ ও বিদেশের সকল খবর পৌঁছে দিতে চালু করেন bdnews24.com এবং এটিই বাংলাদেশের প্রথম অনলাইন নিউজ ওয়েবসাইট। তৌফিক ইমরোজ খালিদী একজন বাংলাদেশি সংবাদিক ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব। তিনি নিজেই এই সংস্থার প্রকাশক ও প্রধান সম্পাদক। উনার এই উল্লেখযোগ্য কাজের জন্য ২০১৭ সালে তিনি জাতীয় আইসিটি পুরস্কার পেয়েছিলেন।



ফাহিম মাশরুর

চাকরি খোঁজার মাধ্যমে বা নিয়োগ উপায় ছিলো বিভিন্ন বিল বোর্ড বা পত্রপত্রিকা কিন্তু তথ্য প্রযুক্তি এই যুগে এখন অনলাইনে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে খুব সহজেই চাকরি খোঁজা বা নিয়োগ দেওয়া যায়, আর বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ও জনপ্রিয় একটি ওয়েবসাইট হচ্ছে বিডিজব এবং এটি বাংলাদেশের প্রথম অনলাইনে জব খোঁজার ওয়েবসাইট। আর এই ওয়েবসাইটে টি তৈরি করেছেন ফাহিম মাশরুর।



মোস্তফা জব্বার

একটা সময় ছিলো! যখন ইন্টারনেট জগতে বাংলা ভাষার কোনো অস্তিত্ব ছিলো না, ছিলো না বাংলা লেখার কোনো অ্যাপস বা কিবোর্ড কিন্তু বর্তমানে মোবাইল ও কম্পিউটার দিয়ে ইন্টারনেট বাংলা লেখার জন্য অনেক অ্যাপস আছে, তবে এই সকল অ্যাপের আদি অ্যাপস হচ্ছে বিজয় ৫২ বাংলাদেশের ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার কম্পিউটারে বাংলা লেখার জন্য ১৯৯ সালে বিজয় ৫২ নামের একটি অ্যাপস আবিষ্কার করেন। যেটা ছিলো বিশ্বের প্রথম কোনো অ্যাপস যা দিয়ে মানুষ ইন্টারনেট জগতে বাংলা লিখতে সক্ষম হোন। মোস্তফা জব্বার এই আবিষ্কারের মাধ্যমে সারা বিশ্বের বাংলা ভাষাবাসীর জন্য নতুন এক সূচনার আবির্ভাব ঘটান।



আয়মান সাদিক

বিশ্বের দ্বিতীয় রানী এলিজাবেথ এর হাত থেকে পুরুস্কার নেওয়ার সুভাগ্য খুব কম মানুষেরই হয় তাদের মধ্যে একজন আমাদের বাংলাদেশের আয়মান সাদিক, যিনি শিক্ষা বিষয়ক অনলাইন পরিষেবা দাতা সংস্থা টেন মিনিট স্কুল এর প্রতিষ্টাতা। প্রাথমিক পর্যায়ে এই সংস্থা কে সহায়তা করেছিল বাংলাদেশি মোবাইল অপারেটর রবি। এই প্রতিষ্ঠান ইউটিউব এবং ফেসবুকে ও তাদের নিজস্ব ওয়েবসাইটে সংক্ষিপ্ত লেকচারসমৃদ্ধ তৈরী করে থাকে। মূলত এই ওয়েবসাইট বা প্রতিষ্ঠান বাংলা ভাষায় ভিডিও ক্লাস লেকচার তৈরি করে থাকে।



মাহমুদুল হাসান সোহাগ

আমাদের বাংলাদেশে দেশি বিদেশি সংস্থা ধারা পরিচালিত অনেক ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আছে, তবে তার মধ্যে ব্যাতিক্রম একটি ওয়েবসাইট হচ্ছে রকমারি ডটকম, অন্যান্য ই-কমার্স ওয়েবসাইট গুলো তে আমাদের দৈনন্দিন জীবনের সকল পণ্য পাওয়া যায় তবে রকমারি তে শুধু বই সেল করা হয়, বাংলাদেশ সবচেয়ে বড় ও একমাত্র জনপ্রিয় বই সেলার ই-কমার্স হচ্ছে রকমারি ডটকম। আর এই প্রতিস্টানের উদ্দোক্তা হচ্ছে মাহমুদুল হাসান সোহাগ। শুরুতে এখানে শুধু বই কিনতে পাওয়া গেলেও বর্তমানে ডিভিডি, ভিডিও টিউটোরিয়াল, ক্রীড়া সামগ্রী, ক্যালকুলেটর, ঘড়ি, পেনড্রাইভ, কম্পিউটারের নানাবিধ যন্ত্রাংশ সহ বিভিন্ন পণ্য কিনতে পাওয়া যায়।



মেহেদি হাসান খান

আমি বিজয় কিবোর্ড দিয়ে ভালো ভাবে লিখতে পারি না, মাঝে মাঝে অভ্র কীবোর্ডও এর সাহায্য নিতে হয়, আর এই অভ্র কীবোর্ডের যিনি প্রতিষ্টাতা তিনি হলেন ময়মনসিংহ মেডিকেন কলেজ ও নটর ডেম কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থী মেহেদি হাসান খান
যিনি একজন বাংলাদেশী চিকিৎসক ও প্রোগ্রামার ২০০৩ সালে ইউনিকোড ও এএনএসআই সমর্থিত বাংলা লেখার বিনামূল্যের ও মুক্ত সফটওয়্যার অভ্র কী-বোর্ড তৈরি করেন, এই কিবোর্ড তৈরি করার পিছনে তার মূল উদ্দেশ্য ছিলো ভাষা হোক উন্মুক্ত।



শেষ করার আগে একটি কথা বলতে চাই, এই টিউটোরিয়াল টি লিখতে আমার প্রায় ১ মাস সময় লেগেছে যার কারন হচ্ছে বাংলাদেশের সেরা ১০ জন ইন্টারনেট উদ্দোক্তা খুঁজে বের করার জন্য অনেকগুলো বাংলাদেশের ইন্টারনেট সংস্থা ও পরিষেবা নামের তালিকা করছিলাম, যার মধ্যে ছিলো দারাজ, ফুডপান্ডা, বিক্রয় ডটকম,

কিন্তু পরবর্তীতে রিসার্চ করে জানতে পারলাম এই সংস্থা বা পরিষেবা গুলোর উদ্দোক্তা কোনো বাংলাদেশী না এবং এগুলোর মূল সংস্থাও বাংলাদেশী না। অবশেষে অনেক কষ্টে বাংলাদেশের অল্প কয়েকজন ইন্টারনেট উদ্দোক্তা কে খুঁজে বের করেছি এবং আপনাদের সাথে শেয়ার করেছি তবে আমার অনুসন্ধান চলে আশা করছি খুব শীঘ্রই আরো কিছু উদ্দোক্তাদের নাম এখানে যুক্ত করা হবে, ততক্ষণ projukti buzz এর সাথেই থাকুন।  আর আপন সন্ধানে যদি কোনো উদ্দোক্তা থাকে তাহলে কমেন্ট করে জানাবেন আমরা সেগুলো এখানে যুক্ত করে দেওয়ার চেষ্টা করবো।

Post a Comment

0 Comments